Connect with us

জীবনী

বিল গেটস এর জীবন যাত্রা।

Published

on

কম্পিউটারের উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম কে না চিনেন। ঠিক তেমনি এর প্রতিষ্ঠাতাকেও অচেনা নয় কারোর। হ্যা,আমি বিল গেটস্ এর কথাই বলছি। তার উপরে তিনি বর্তমান বিশ্বের ১ নাম্বার ধনীব্যক্তি। চলুন জেনে নেই তার সমন্ধে কিছু তথ্য।
bill_gates

উইলিয়াম হেনরী গেটস III বা বিল গেটস এর জন্ম হয় অক্টোবর এর ২৮ তারিখ ১৯৫৫ সালে।
বিল গেটস সিয়াটল, ওয়াশিংটনে উচ্চ-মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম উইলিয়াম হেন্‌রী গেটস সিনিয়র, যিনি একজন প্রসিদ্ধ আইনজীবী (অবসরপ্রাপ্ত)। মাতার নাম মেরি ম্যাক্সয়েল গেটস।

বিল গেটসের ক্রিস্টিয়েন নামে এক বড় বোন আর লিব্বি নামের এক ছোট বোন আছে।
শৈশবে বাবা-মা তাঁকে আইনজীবী বানাতে চেয়েছিলেন।তাই ১৩ বছর বয়সে তিনি লেকসাইড স্কুলে ভর্তি হন।এবং সেখান থেকেই তার প্রোগ্রামিং এর যাত্রা শুরু হয়। তিনি তার স্কুলেই তার প্রথম গেম তৈরী করে যার নাম “টিক টেক টয়”।ওই স্কুল থেকে থেকেই তিনি ১৯৭৩ সালে পাশ করেন।পরবর্তিতে তিনি স্যাট পরীক্ষায় ১৬০০নাম্বার এর মধ্যে ১৫৯০ নাম্বার পান এবং ১৯৭৩ এর শরতে হার্ভার্ড কলেজে ভর্তি হন।

১৯৭৫ সালে বিল গেটস এবং পল এলেন একসাথে “মাইক্রোসফট” নামক কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন, যেটা পরবর্তীতে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় পিসি কোম্পানির মর্যাদা পায়। ১৯৮৫ সালের ২০ নভেম্বর মাইক্রোসফট উইন্ডোজ১.০ সংস্করণ প্রকাশ করেন তিনি। বর্তমানে উইন্ডোজ পৃথিবীর একটি অন্যতম কম্পিউটার অপারেটিং সিস্টেম।
১৯৯৫ থেকে ২০০৭ এবং ২০০৯ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিনি পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি।
তার বর্তমান টাকার পরিমাণ ৪৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। যা বাংলাদেশি টাকায় 7088550000000 টাকা। তিনি ১৯৯৪ সালের ১লা জানুয়ারী তারিখে মেলিন্ডা ফ্রেঞ্চ- কে বিয়ে করেন।
bill_gats_wife

২০০০ সালে তিনি “বিল এবং মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন” প্রতিষ্ঠা করেন। জানুয়ারি,২০০০ সালে তিনি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসাবে পদত্যাগ করেন।

তার শিক্ষা জীবন:
নায়েনরোড বিজনেস ইউনিভার্সিটিট, ব্রিউকেলেন, নেদারল্যান্ড, ২০০০

রয়েল ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি, স্টকহোম, সুইডেন, ২০০২;

ওয়াসেদা ইউনিভার্সিটি, টোকিও, জাপান, ২০০৫;

সিংহুয়া ইউনিভার্সিটি, বেইজিং, চীন, এপ্রিল ২০০৭

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়, জুন ২০০৭

ক্যারোলিন্সকা ইন্সটিটিউটেট, স্টকহোম, জানুয়ারী ২০০৮ 

কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় জুন ২০০৯.

পুরষ্কার:
ন্যাশনাল মেডেল অব টেকনোলজি অ্যান্ড ইনোভেশন১৯৯২

স্বাক্ষর :

সর্বশেষ পঠিত

Copyright © 2018 Amaderwap.com